ফেরার অপেক্ষায় সঞ্জয় দত্ত

সিলেট মিরর ডেস্ক


অক্টোবর ১৭, ২০২০
০১:১৯ অপরাহ্ন


আপডেট : অক্টোবর ১৭, ২০২০
০১:১৯ অপরাহ্ন



ফেরার অপেক্ষায় সঞ্জয় দত্ত

 

তিনি বলিউডের ‘খলনায়ক’ খ্যাত নায়ক। গ্ল্যামার, হাইট আর কণ্ঠ সব মিলে বলিউডে সঞ্জয় দত্ত এক স্বতন্ত্র তারকা। বছরের পর বছর সেই ঔজ্জ্বল্য ধরেও রেখেছেন তিনি।

তবে বেশ বদলে গেছেন এই বলিউড তারকা। শরীর কিছুটা ভেঙে গেছে। তাঁকে দেখে এখন যেন চেনাই যায় না। তবে মনোবল ও ব্যক্তিত্ব এতটুকু দুর্বল হয়নি। বরং নিজেই বললেন, ‘শিগগিরই ক্যানসারকে হারিয়ে ফিরব।’

ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার পর এই প্রথম নিজের অসুস্থতা নিয়ে কথা বললেন সঞ্জয় দত্ত। হেয়ার স্টাইলিস্ট আলিম হাকিমের ইনস্টাগ্রাম পেজে শেয়ার করা এক ভিডিওতে শোনা গেল সঞ্জয়ের কণ্ঠ, ‘আমার বিশ্বাস, খুব শিগগিরই ক্যানসার থেকে মুক্তি পাব।’

স্বাস্থ্যগত কারণে শুটিং থেকে বিরতি নিয়েছেন তিনি। কয়েক মাস আগেই ফুসফুসে ক্যানসার ধরা পড়ে তাঁর। তারপরেই ঘোষণা দেন, আপাতত শুটিং থেকে বিরত থাকবেন। মাঝে কোকিলাবেন হাসপাতাল আর বিমানবন্দর ছাড়া বিশেষ কোথাও দেখা যায়নি তাঁকে।

অনেক দিন পর দেখা দিলেন ইনস্টাগ্রামে। সেই চেনা স্টাইলে কথা বললেন তিনি। 

চুল ছাঁটাতে সেলুনে গিয়েছিলেন সঞ্জয়। সেই সেলুনকে একটু পরিচিত করাতে সঞ্জয় দত্ত ক্যামেরা ম্যানকে আরও সামনে এসে নিজের কপালে একটি দাগ নির্দেশ করে বললেন, ‘আপনারা কপালে একটা দাগ দেখতে পাচ্ছেন? এই দাগ ক্যানসারের। তবে একে হারাব তাড়াতাড়ি। ক্যানসার জয় করে আবারও আপনাদের মধ্যে ফিরব।’

ভিডিওতে সঞ্জয় দত্ত নিজের আসন্ন সিনেমা নিয়েও কথা বলেন। জানান, শুটিং করার জন্য মুখিয়ে আছেন তিনি।

বলেন, ‘কত দিন বাইরে বেরোই না। বাড়ির বাইরে বেরোতে পারাও যে একটা আশীর্বাদ, এটা আগে কখনো বুঝিনি। এই যে দাড়ি দেখছেন, ‘কেজিএফ’ সিনেমার জন্য রেখেছি। নভেম্বরেই শুটিং শুরু হচ্ছে। যদি সেটে ফিরতে পারি, সেটা হবে একটা দারুণ ব্যাপার। আগামীকাল ‘শমসেরার’ ডাবিং রয়েছে। সেখানেও বেশ মজা হবে।’

ইতিমধ্যে ‘সড়ক টু’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। আটকে থাকা ছবিগুলো হচ্ছে, ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার টু’, ‘শমসেরা’ ও ‘পৃথ্বীরাজ’।

তিনটিই ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটের মারপিটের ছবি। এর মধ্যে রাভিনা ট্যান্ডনকে সঙ্গী করে সঞ্জয়ের ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার টু’ ছবিটির মাত্র তিন দিনের শুটিং বাকি। সঞ্জয় দত্ত, রণবীর কাপুর ও বাণী কাপুর অভিনীত ‘শমসেরা’ ছবিটির এক সপ্তাহের শুটিং বাকি।

আর ‘পৃথ্বীরাজ’ ছবিটির মাত্র ৪০ শতাংশ কাজ হয়েছে। অবশ্য এই ছবির মুখ্য ভূমিকায় দেখা দেবেন অক্ষয় কুমার ও ‘বিশ্বসুন্দরী’ মানুষি ছিল্লার। গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে দেখা দেওয়ার কথা সঞ্জয়ের। এই তিন ছবির ভাগ্য জড়িয়ে আছে সঞ্জয় দত্তের রোগমুক্তির সঙ্গে।

বি এন-১