সিলেটে সড়ক বন্ধ করে পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলন, যানজট

সিলেট মিরর ডেস্ক


সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
০৮:৪৭ অপরাহ্ন


আপডেট : সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
১০:১৮ অপরাহ্ন



সিলেটে সড়ক বন্ধ করে পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলন, যানজট

সিলেট নগরের সবকটি প্রবেশদ্বার অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করেছেন পরিবহন শ্রমিকরা। কোনো পথেই নগরে ঢুকতে বা বের হতে পারছে না যানবাহন। এতে নগর ও আশপাশ এলাকায় তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। 

আজ বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সোয়া ৭ টার দিকে পরিবহন শ্রমিক নেতাদের উপর মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এ আন্দোলন শুরু হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন চলমান রয়েছে।

জানা যায়, গত ১৪ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ সুরমা থানায় শ্রমিক নেতাদের বিরুদ্ধে মারপিট ও টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে একটি মামলা করেন লেগুনা শ্রমিক মো. শাহাব উদ্দিন। মামলায় আসামি করা হয় সিলেট জেলা বাস মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মইনুল ইসলাম, সিএনজি অপটোরিকশা ম্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাকারিয়া আহমদ, হিউম্যান হুলার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল মিয়া মইনসহ চার শ্রমিক নেতাকে। এছাড়াও অজ্ঞাত আরও ২০ থেকে ৩৫ জনকে আসামি করা হয়। এ মামলার প্রতিবাদে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই আন্দোলনে নেমেছেন শ্রমিকরা। আজ সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় যানবাহন বন্ধ রেখে সিলেট নগরের বিভিন্ন মোড়ে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন তারা। ফলে দূরপাল্লার বাসসহ সিলেটে সব ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে। পূর্ব ঘোষণা ছাড়া এমন কর্মসূচি দেওয়ায় দুর্ভোগে পরেছেন যাত্রীরা। অনেকেই বাসের কাউন্টারগুলোতে এসে বসে আছেন।

রাত ৮টায় নগরের উপশহর, শাহী ঈদগাহ, বালুচর, টিলাগড়, হুমায়ন রশীদ চত্বরসহ বিভিন্ন মোড়ে পরিবহন শ্রমিকরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে। সড়কে টায়ার পুড়িয়ে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছেন তারা। ফলে সব ধরণের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ সূত্র জানায় পরিবহন শ্রমিকদের দুটি গ্রুপ রয়েছে। দুই গ্রুপের বিরোধের জেরে থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে। একটি মামলায় পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের আসামি করা হয়েছে।

মামলা দায়েরের ৮ দিন পর আন্দোলনে নামা প্রসঙ্গে সিলেট জেলা বাস মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মইনুল ইসলাম বলেন. মামলার বিষয়টি আমরা আজকেই জানতে পেরেছি। আজকে আমাদের কয়েকজন শ্রমিক পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে এ ব্যাপারে দেখা করতে গিয়েছিলেন। তিনি তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন।

মইনুল বলেন, যিনি আমাদের নামে মামলা করেছেন তাকে আগেই শ্রমিক সমিতি থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। এই কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি আমাদের নামে চাঁদাবাজি ছিনতাইয়ের অভিযোগে মিথ্যে মামলা করেন। পুলিশও কোন তদন্ত ছাড়াই মামলাটি গ্রহণ করেন।

তিনি আরও বলেন, মামলার বিষয়টি জানতে পেরে শ্রমিকরা আজ বিক্ষোব্ধ হয়ে উঠছে। তারা বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করে ও সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছে। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পরেছে। পুলিশ কমিশনারের অপসারণ ও মামলা প্রত্যাহার না হলে আন্দালন চলবে।

দক্ষিণ সুরমা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন কুমার চৌধুরী বলেন, দুই গ্রুপের শ্রমিক নেতাদের বিরুদ্ধে থানায় দুটি মামলা হয়েছে। পুলিশ মামলাগুলো তদন্ত করছে। মামলার এতোদিন পর পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলন অযৌক্তিক।

লাইভ দেখুন-

https://www.facebook.com/watch/live/?ref=notif&v=793001262021003¬if_id=1663858481770511¬if_t=live_video


এএফ/১০