গ্রন্থীর ফেসবুক লাইভ সিরিজের চতুর্দশ পর্ব আজ

সিলেট মিরর ডেস্ক


অক্টোবর ০৩, ২০২০
১২:১৫ পূর্বাহ্ন


আপডেট : অক্টোবর ০৩, ২০২০
১২:১৫ পূর্বাহ্ন



গ্রন্থীর ফেসবুক লাইভ সিরিজের চতুর্দশ পর্ব আজ

গ্রন্থীর ফেসবুক লাইভ সিরিজ ‘হান্ড্রেড পোয়েটস এরাউন্ড দ্য ওয়ার্ল্ড ফর লাভ’ এর চতুর্দশ পর্ব আজ শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত হবে।

এতে বাংলাদেশ থেকে যোগ দিচ্ছেন আশির দশকের কবি সাজ্জাদ শরীফ, ভারতের পশ্চিম বাংলার কবি মৃদুল দাশগুপ্ত, মেক্সিকান কবি আলিসিয়া মিনহারেস, সুইডিশ কবি ফ্রেকে রাইহা এবং বৃটিশ-ভারতীয় কবি মনা দাশ।

শনিবার যুক্তরাজ্য সময় বিকেল ৪টা এবং বাংলাদেশ সময় রাত ন’টায় গ্রন্থীর ফেসবুক পেজ থেকে প্রচারিত হবে এই লাইভ অধিবেশন।

নব্বই দশকের শুরু থেকে লিটলম্যাগ কেন্দ্রিক আন্দোলনে সক্রিয় গ্রন্থীর ‘হান্ড্রেড পোয়েটস আরাউন্ড দ্যা ওয়ার্ল্ড ফর লাভে’র সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে বৃটেনে ভারতীয় মার্গ সঙ্গীতের শীর্ষ সংগঠন সৌধ সোসাইটি অব পোয়েট্রি এন্ড ইন্ডিয়ান মিউজিক ও বাংলা লোকসঙ্গীতের জনপ্রিয় সংস্থা রাধারমন সোসাইটি।

এ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ১৩ টি পর্বে সারা বিশ্বের ১৮ টিরও বেশি দেশ থেকে বিভিন্ন ভাষার মোট ৬৫ জন শীর্ষস্থানীয় কবি অংশ নিয়েছেন। অনুষ্ঠানগুলো ইতোমধ্যে ব্যাপকভাবে সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছে।

গ্রন্থী সম্পাদক কবি শামীম শাহান বলেন, আন্তর্জাতিক সাহিত্য বলয়ে গ্রন্থী একদিকে যেমন বাংলা সাহিত্যের যোগাযোগ তৈরি করতে চায়, অপরদিকে বাংলাভাষার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে চায় বিশ্বের সমকালীন শ্রেষ্ঠ সব কন্ঠস্বর বা রচয়িতাদের।

ক্রোয়েশিয়ান কবি জাসনা গোজিক বলেন, এক বিস্ময়কর উদ্যোগ এটি। করনাকালে বিশ্বের নানা প্রান্তের সৃজনশীল মানুষদের চিন্তা ও কবিতার সঙ্গে পরিচিত হবার এক বিরল সুযোগ।

মেক্সিকান কবি রসানা কামারিনা বলেন, প্রতি শনিবার এই আসরের জন্যে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকি। সমকালীন বিশ্বের সেরা সেরা সব কবি এবং কবিতা নিয়ে এত গভীর আলোচনা রীতিমত মন্ত্রমুগ্ধ রাখে পুরো দু’ঘন্টা।

গ্রন্থীর এই উদ্যোগের সঞ্চালক কবি টি এম আহমেদ কায়সার বলেন, গ্রন্থী সাহিত্যে নতুন কন্ঠস্বর, নতুন শৈলী এবং নতুন সাহিত্য আন্দোলনকে যেমন পরিচর্যা করেছে, অন্যদিকে আবার সাহিত্যে সত্যিকার আর্ন্তজাতিকতাবাদের ভিশন নিয়ে ধারাবাহিক সংযোগ রচনার নানা রকম উদ্যোগ অব্যাহত রেখেছে।

প্রখ্যাত সার্বিয়ান কবি, অনুবাদক ও শিক্ষাবিদ ডানিয়েলা ট্রাজকোভিক জানান, গ্রন্থী এই অসামান্য উদ্যোগের মধ্য দিয়ে এক অভূতপূর্ব সংযোগ রচনা করেছে মানুষে মানুষে, আর নানাভাষার কবিতে কবিতে। সৃজনশীল মানুষদের এই অপূর্ব সংযোগ ইতিহাসের অংশ হয়ে উঠতে পারে।

 

এএফ/০২