বিদ্যুৎহীন কমলগঞ্জ : দুর্ভোগে ৯৮ হাজার গ্রাহক

বিশেষ প্রতিনিধি, কমলগঞ্জ


অক্টোবর ১৭, ২০২০
০৬:১৭ অপরাহ্ন


আপডেট : অক্টোবর ১৭, ২০২০
০৬:১৭ অপরাহ্ন



বিদ্যুৎহীন কমলগঞ্জ : দুর্ভোগে ৯৮ হাজার গ্রাহক

প্রচন্ড খরতাপের মাঝে আজ শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিদ্যুৎবিহীন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা। এ অবস্থায় মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (পবিস) কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয়ের অধীনস্থ কমলগঞ্জ উপজেলা ও রাজনগর এবং কুলাউড়া উপজেলার একাংশের ৯৮ হাজার গ্রাহক চরম দুর্ভোগের মাঝে পড়েন।

জানা যায়, পবিস কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয়ের অধীনস্থ বিদ্যুৎ গ্রাহকরা কুলাউড়া ও শ্রীমঙ্গল বিদ্যুৎ গ্রিড লাইনের মায়াজালে আটকা রয়েছেন। কুলাউড়া বিদ্যুৎ গ্রিডের লাইন ভালো থাকলে কমলগঞ্জে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক থাকে। আবার কুলাউড়া বিদ্যুৎ গ্রিডের লাইনে কোনো ত্রুটি থাকলে কমলগঞ্জের বিদ্যুৎ গ্রাহকদের শ্রীমঙ্গল বিদ্যুৎ গ্রিড লাইন থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। আর কোনো কারণে কুলাউড়া ও শ্রীমঙ্গল গ্রিড লাইনে ত্রুটি দেখা দিলে কমলগঞ্জ উপজেলা বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়ে। তখন শুরু হয় গ্রাহকদের ভোগান্তি।

কুলাউড়া বিদ্যুৎ গ্রিড লাইনে মেরামত কাজ করার জন্য শনিবার সকাল ১১টায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রেখে শ্রীমঙ্গল গ্রিড লাইনে সংযুক্ত করার সময় ৩৩ হাজার কেভি প্রধান বিদ্যুৎ লাইনের লাউয়াছড়া পাহাড়ি এলাকায় লাইনে ত্রুটির কারণে কমলগঞ্জে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকে। বেলা ১টায় মাত্র ১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়ে লাইনে ত্রুটির কারণে আবারও বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় প্রচন্ড খরতাপে গ্রাহকরা চরম দুর্ভোগের মাঝে পড়েন।

শমশেরনগরস্থ বিএএফ শাহীন কলেজের শিক্ষক শারমীন রহমান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, 'শনিবার কমলগঞ্জে তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রির বেশি। এ সময় বাসা-বাড়িতে শিশুদের নিয়ে বসবাস করা ছিল খুবই কষ্টের।'

শমশেরনগর পপুলার ডায়গনস্টিক সেন্টারের পরিচালক ও ব্যবস্থাপক নজরুল ইসলাম খান বলেন, 'শনিবার সকালে অনেক রোগী এসেছিলেন রোগ নির্ণয় পরীক্ষার জন্য। সারাদিন বিদ্যুৎবিহীন থাকায় এসব রোগী চরম ভোগান্তির শিকার হয়েছেন।'

এভাবে শনিবার সকাল থেকে সারাদিন বিদ্যুৎ না থাকায় সর্বত্র নানা পেশার মানুষজন, শিশু-কিশোর ও অসুস্থ লোকজন ভোগান্তির শিকার হয়েছেন। শনিবার সন্ধ্যায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বিদ্যুৎবিহীন ছিল কমলগঞ্জ উপজেলা।

পবিস কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয়ের এজিএম (কম) ওবায়দুল হক শনিবার সন্ধ্যায় বলেন, 'যখন কুলাউড়া গ্রিডে সমস্যা হয় তখন শ্রীমঙ্গল গ্রিড থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয় কমলগঞ্জে। আর শ্রীমঙ্গলে সমস্যা হলে কমলগঞ্জে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয় কুলাউড়া থেকে। দুর্ভাগ্যবশত শনিবার শ্রীমঙ্গল গ্রিড থেকে কমলগঞ্জে আসা বিদ্যুৎ লাইনে ত্রুটির সঙ্গে কুলাউড়া লাইনেও ত্রুটির দেখা দেওয়ার কারণে এ বিদ্যুৎ বিভ্রাট হয়েছে। লাইনে কাজ চলছে। তবে ঠিক কখন বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে তা ঠিক বলা যাচ্ছে না।'

 

এমআর/আরআর-০৪