@Framework : Laravel 6 (IT Factory Admin) @Developer : Faysal Younus Daily Sylhet Mirror | কাবুলে নারীদের বিক্ষোভে তালিবানের পেপার স্প্রে
কাবুলে নারীদের বিক্ষোভে তালিবানের পেপার স্প্রে

সিলেট মিরর ডেস্ক


জানুয়ারি ১৭, ২০২২
১২:৫৪ পূর্বাহ্ন


আপডেট : জানুয়ারি ১৭, ২০২২
১২:৫৪ পূর্বাহ্ন



কাবুলে নারীদের বিক্ষোভে তালিবানের পেপার স্প্রে

চাকরি এবং শিক্ষার অধিকারের দাবিতে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একদল নারীর বিক্ষোভে পিপার স্প্রে ছুড়েছে দেশটির ক্ষমতাসীন শাসকগোষ্ঠী তালেবানের নিরাপত্তা বাহিনী। কাবুলে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া অন্তত তিনজন বিক্ষোভকারী ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপিকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

আগস্টে বলপ্রয়োগের মাধ্যমে দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর তালেবান কর্তৃপক্ষ আফগানদের ওপর—বিশেষ করে নারীদের ওপর বিভিন্ন ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

এএফপির একজন প্রতিনিধি বলেছেন, রোববার কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে অন্তত ২০ জন নারী সমবেত হয়ে ‌‘সমতা এবং ন্যায়বিচার’ দাবিতে স্লোগান দিয়েছেন। এ সময় তাদের হাতে বিভিন্ন ধরনের ব্যানার দেখা যায়। এতে নারীর অধিকার, মানবাধিকারের দাবি সংক্রান্ত বিভিন্ন বার্তা লেখা ছিল।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া তিনজন নারী এএফপিকে বলেন, পরে তালেবানের যোদ্ধারা বেশ কয়েকটি গাড়িতে করে ঘটনাস্থলে পৌঁছে নারীদের বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে।

নিরাপত্তার কারণে নাম প্রকাশে অস্বীকৃতি জানিয়ে একজন বিক্ষোভকারী বলেন, আমরা কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে ছিলাম। এ সময় তালেবানের তিনটি গাড়ি আসে এবং একটি গাড়ির যোদ্ধারা আমাদের ওপর পিপার স্প্রে নিক্ষেপ করে।

‘আমার ডান চোখ জ্বালাপোড়া করতে শুরু করে। আমি তাদের একজনকে বলেছিলাম, আপনাকে ধিক্কার জানাই। পরে তিনি আমার দিকে বন্দুক তাক করেন।’

অন্য দু’জন বিক্ষোভকারী বলেন, স্প্রের কারণে একজন নারীর চোখ এবং মুখে অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বিক্ষোভের ভিডিও ধারণ করায় ঘটনাস্থল থেকে তালেবানের একজন যোদ্ধাকে এক ব্যক্তির মোবাইল ফোন জব্দ করতে দেখেছেন এএফপির প্রতিনিধি। 

গত আগস্টের মাঝের দিকে ক্ষমতায় আসার পর কট্টরপন্থী ইসলামি এই গোষ্ঠী প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া বিক্ষোভ আয়োজনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। তখন থেকে নারীদের অধিকারের দাবিতে আয়োজিত বিক্ষোভ-প্রতিবাদ বারবার বলপ্রয়োগ করে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে তালেবানের যোদ্ধারা।

দেশটির সরকারি খাতে কর্মরত নারীদের কাজে ফেরায় বারণ করে দিয়েছে তালেবান কর্তৃপক্ষ। এছাড়া দেশটির অনেক মাধ্যমিক স্কুল মেয়েদের জন্য পুনরায় খোলা হয়নি এবং বন্ধ রয়েছে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ও।

দুই দশক পর গত আগস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতায় এসে অতীতের শাসনামলের মতো ঘনিষ্ঠ পুরুষ সঙ্গী ছাড়া নারীদের দীর্ঘপথের যাত্রা নিষিদ্ধ করেছে তালেবান। একই সঙ্গে দেশটিতে নারীদের অভিনীত বিভিন্ন ধরনের সিরিয়াল ও অনুষ্ঠান টেলিভিশনে সম্প্রচারে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক বাহিনীর অভিযানের আগে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ছিল তালেবান। প্রথমবার দেশটির ক্ষমতায় এসে নারীদের শিক্ষা, চাকরি নিষিদ্ধসহ বিভিন্ন ধরনের কট্টর বিধি-নিষেধ আরোপ করে সশস্ত্র এই গোষ্ঠী।

এবারও তালেবান একই ধরনের পুরোনো সেসব বিধি-নিষেধ ফিরিয়ে আনায় দেশটির অনেক নারী আত্মগোপনে গেছেন এবং অনেকে আতঙ্কের মধ্যে জীবন-যাপন করছেন।

আরসি-০২