মুশফিকের সেঞ্চুরিও দল হার এড়াতে পারেনি

সিলেট মিরর ডেস্ক


অক্টোবর ১৬, ২০২০
০১:২০ পূর্বাহ্ন


আপডেট : অক্টোবর ১৬, ২০২০
০১:২০ পূর্বাহ্ন



মুশফিকের সেঞ্চুরিও দল হার এড়াতে পারেনি

অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম সেঞ্চুরি করলেও ম্যাচ শেষে দলের হার এড়ানো যায়নি। হেসেছেন ৮২ রান করা শেখ মাহাদি হাসান। মিরপুরে তামিম ইকবাল একাদশের ২২১ রানের জবাবে নাজমুল হোসেন শান্ত একাদশ গুটিয়ে যায় ১৭৯ রানে। ৪২ রানের বড় ব্যবধানে ম্যাচ জিতে তামিম ইকবাল একাদশ টুর্নামেন্টে প্রথম পয়েন্ট পেল।
তিন দলের এই টুর্নামেন্টে এখন তিন দলের পয়েন্টই সমান। সবগুলো দল একটি ম্যাচে জিতেছে এবং একটি ম্যাচে হেরেছে। দ্বিতীয় দফা মুখোমুখি লড়াইয়ে নির্ধারিত হবে কোন দুটি দল ফাইনালে খেলবে।
বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর মিরপুরে রান তাড়ায় নামা নাজমুল হোসেন একাদশ শুরুতেই মুখ থুবড়ে পড়ে। ২৫ ওভারে মাত্র ৭৪ রানে দলের পাঁচ ব্যাটসম্যান আউট। বাকি সময়ে দলের হাল ধরেন অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম। ১৩৪ রানে ৮ উইকেট হারানো দলের একমাত্র ত্রাণকর্তা হয়ে লড়ছিলেন মুশফিক। ঝলমলে সেঞ্চুরি তুলে নিলেন মুশফিক। কিন্তু দলকে জেতাতে পারলেন না!
শেষ ৩৬ বলে জয়ের জন্য নাজমুল হোসেন একাদশের প্রয়োজন দাড়ায় ৫১ রানের। সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকই তখন দলের শেষ ভরসা। কিন্তু সেঞ্চুরির পর আর বেশিদুর বাড়তে পারলেন না মুশফিক। ওপেনিং স্পেলের মতো ডেথ ওভারেও মুস্তাফিজুর রহমান চমৎকার বোলিং করলেন। মুশফিককে ফেরালেন ১০৩ রানে। ১০৯ বলে ৯ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় মুশফিকের সেঞ্চুরিটা চলতি টুর্নামেন্টে কোন ব্যাটসম্যানের প্রথম সেঞ্চুরি।
সাইফুদ্দিন, মুস্তাফিজ ও শরিফুল- তিন পেসার এই ম্যাচে পিঠ চাপড়ে দেওয়ার মতোই পারফরমেন্স দেখালেন। শরিফুল ৩৭ রানে পেলেন ৩ উইকেট। মুস্তাফিজ এক কথায় দুর্দান্ত- ৮ ওভারে ২ মেডেনসহ মাত্র ১৫ রানে ৩ উইকেট।
মুশফিক ১০৩ রান করে ফেরার পরের ওভারেই সাইফুদ্দিন শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে তাসকিনকে আউট করে তামিম ইকবাল একাদশকে এনে দিলেন ৪২ রানে বড় জয়।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
তামিম ইকবাল একাদশ: ২২১/৯ (৫০ ওভারে, তামিম ৩৩, শাহাদাত ৩১, মাহাদি ৮২, তাইজুল ২০*, আল আমিন ৩/৪৩)।
নাজমুল হোসেন একাদশ: ১৭৯/১০ (৪৫.৪ ওভাওে, মুশফিক ১০৩, ইরফান সুকুর ২৪, শরিফুল ৪/৩৭, মুস্তাফিজুর ৩/১৫, সাইফুদ্দিন ২/৪১)।
ফল: তামিম ইকবাল একাদশ ৪২ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা: শেখ মাহাদি হাসান।
এএন/০৩