সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল, তবে বিপদমুক্ত নন

সিলেট মিরর ডেস্ক


অক্টোবর ১৩, ২০২০
১১:৩৭ পূর্বাহ্ন


আপডেট : অক্টোবর ১৩, ২০২০
১১:৩৭ পূর্বাহ্ন



সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল, তবে বিপদমুক্ত নন

পশ্চিমবঙ্গের বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সামান্য জ্বর রয়েছে। তবে সামগ্রিকভাবে শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়নি। খারাপ কিছু পাওয়া যায়নি মস্তিষ্কের এমআরআই-তেও।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোাবর) দুপুর নাগাদ এ খবর পাওয়া যায় হাসপাতাল সূত্রে। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, সৌমিত্রর অবস্থা ‘আপাতত স্থিতিশীল’। তবে উদ্বেগ এখনো কাটেনি। অভিনেতা পুরোপুরি সঙ্কটমুক্ত নন বলেই জানা গেছে।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, অশীতিপর সৌমিত্রের শরীরে সোডিয়াম ও পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিক নেই। তবে চিকিৎসকদের আশা, ওষুধের মাধ্যমে তা নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। ইকো, ইসিজি ও রক্তপরীক্ষা করা হতে পারে তার। আরও একবার এমআরআই-ও করা হতে পারে।

এ দিকে বুধবার নতুন করে করোনা পরীক্ষাও করা হবে সৌমিত্রর। এ ভাইরাসে আক্রান্ত অভিনেতাকে ঠিক এক সপ্তাহ আগে বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি করানো হয়। সেই থেকেই চিকিৎসাধীন তিনি। শুক্রবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়।

সোমবার হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছিল, সৌমিত্রর প্রস্টেটের পুরোনো ক্যানসার ফিরে এসেছে। ছড়িয়ে পড়েছে ফুসফুস ও মস্তিষ্কে। সংক্রমণ ঘটেছে মূত্রথলিতে। তবে দ্বিতীয়বার প্লাজমা থেরাপির পর খানিকটা হলেও উন্নতি লক্ষ্য করা গেছে।

সোমবার রাতেই সৌমিত্রকে বাইপ্যাপ ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। শ্বাসকষ্ট প্রবল না হলে রোগীকে সাধারণত বাইপ্যাপ বা নন ইনভেসিভ ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। সে ক্ষেত্রে নাকে-মুখে মাস্ক লাগিয়ে বাড়তি চাপে অক্সিজেন-যুক্ত বাতাস পাঠানো হয় রোগীর ফুসফুসে। করোনা রোগীদের অনেকের ক্ষেত্রেই নন ইনভেসিভ ভেন্টিলেশন পদ্ধতি কাজ করেছে। সোমবার রাত থেকে সৌমিত্রকে সেভাবেই রাখা হয়েছে।

বিএ-১৬