সৈয়দ হকের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী আজ

সিলেট মিরর ডেস্ক


ডিসেম্বর ২৭, ২০২০
০১:১০ অপরাহ্ন


আপডেট : ডিসেম্বর ২৭, ২০২০
০১:১০ অপরাহ্ন



সৈয়দ হকের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী আজ

কবি সৈয়দ শামসুল হকের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী আজ রবিবার। এ উপলক্ষে ঢাকায় এবং পৈতৃক নিবাস কুড়িগ্রামে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রথমা প্রকাশন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত হতে যাচ্ছে ‘বাসিত জীবন : সৈয়দ হকের সঙ্গে শেষ দিনগুলো’ শীর্ষক স্মৃতিচারণামূলক বই। এটি লিখেছেন কথাশিল্পী আনোয়ারা সৈয়দ হক।

এছাড়া প্রকাশনা সংস্থা ঐতিহ্য প্রকাশ করছে সৈয়দ শামসুল হকের প্রিয় ৫০ প্রেমের কবিতা। চিত্র প্রকাশনী প্রকাশ করছে সৈয়দ শামসুল হকের শিশুতোষ গ্রন্থ ভয় করলেই ভয়।

এছাড়া সৈয়দ শামসুল হকের জন্মভূমি কুড়িগ্রামে জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নানা কর্মসূচি গৃহীত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ১০টায় কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে কবির সমাধিতে– জেলা প্রশাসন, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্মিলিত উদ্যোগে পুষ্পস্তবক অর্পণ, র‌্যালি, দোয়া মাহফিল।

এছাড়া জেলা কালেক্টরেট কার্যালয়ের স্বপ্নকুঁড়ি মিলনায়তনের স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে শিশু-কিশোর প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। সৈয়দ শামসুল হকের ৮৫তম জন্মবার্ষিকীতে তার সমাধিতে এপিটাফ-সংবলিত সমাধিফলক উন্মোচন করা হবে।

গত শুক্রবার পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজারে সৈয়দ শামসুল হককে নিবেদন করে অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘বিজয় নাট্যোৎসব’। মৈত্রী থিয়েটার ও শৌখিন থিয়েটারের যৌথ আয়োজনে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হয় চাইল্ড হেভেন স্কুলের সৈয়দ শামসুল হক স্টুডিও থিয়েটার মিলনায়তনে।

আহসান সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন পথনাটক পরিষদের সহসভাপতি মিজানুর রহমান, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের দপ্তর সম্পাদক খোরশেদুল আলম ও সাংগঠটিক সম্পাদক তপন হাফিজ। নাট্যোৎসবে মঞ্চায়িত হয় নাটনন্দন-এর নাটক দেয়ালের কান্না, নাট্যযোদ্ধা-এর নাটক বুদ্ধি, উৎস নাট্যদল-এর নাটক একাত্তরের ইবলিশ, মৈত্রী থিয়েটার-এর এই দিন এই দিন এবং মৈত্রী থিয়েটার-এর দাম দিয়ে কিনেছি বাঙলা।

১৯৩৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর কুড়িগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন সৈয়দ শামসুল হক। তার বাবার নাম সৈয়দ সিদ্দিক হোসাইন, মা হালিমা খাতyন। তার লেখা নাটক, কবিতা, গল্প, উপন্যাস, গান সমৃদ্ধ করেছে বাংলা সাহিত্য-সংস্কৃতিকে। সৈয়দ হকের লেখা উল্লেখযোগ্য নাটকের মধ্যে রয়েছে- ‘নূরুলদীনের সারাজীবন’, ‘পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়’, ‘গণনায়ক’, ‘ঈর্ষা’। তার লেখা উপন্যাসের মধ্যে রয়েছে- ‘খেলারাম খেলে যা’, ‘সীমানা ছাড়িয়ে’, ‘নীল দংশন’। কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ‘পরানের গহীন ভিতর’, নাভিমূলে ভস্মধার’, ‘আমার শহর ঢাকা’, ‘বৃষ্টি ও জলের কবিতা’ প্রভৃতি। গান লিখেও খ্যাতি অর্জন করেছেন সৈয়দ হক। তার লেখা গানের মধ্যে রয়েছে- ‘হায় রে মানুষ রঙিন ফানুস’, ‘অনেক সাধের ময়না আমার’, ‘তোরা দেখ দেখ দেখ রে চাহিয়া’, ‘চাঁদের সাথে আমি দেব না তোমার তুলনা’।

সৈয়দ হকের লেখা উপন্যাস ‘নিষিদ্ধ লোবান’ অবলম্বনে নাসির উদ্দিন ইউসুফ নির্মাণ করেছেন মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র ‘গেরিলা’।

কর্মজীবনের স্বীকৃতি হিসেবে সৈয়দ শামসুল হক পেয়েছেন একুশে পদক, স্বাধীনতা পুরস্কার, বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মাননা।

বিএ-০৮